ঢাকা
২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মানুষ স্বপ্নেও ভাবিনি, কল্পনাও করেনি

বৈশ্বিক মহামারী Covid-19 অর্থাৎ করোনা  আক্রান্ত বিপর্যস্ত সময়ের মধ্যেই আমাদের দ্বারে উপনীত হলো মুসলমানদের সর্বানন্দের সেরা অনুষ্ঠান পবিত্র ঈদুল ফিতর। আমাদের প্রত্যেকের জীবনে এটি সবচেয়ে ব্যতিক্রম একটি অনুষ্ঠান উদযাপিত হতে চলেছে। কারণ এমন মহামারী আক্রান্ত সময় আমরা এর আগে কখনো দেখিনি, কিংবা স্বপ্নেও ভাবিনি’ কল্পনা করার তো প্রশ্নই উঠে না। রমজান পূর্ববর্তী দুই তিন মাস আগ থেকেই করোনার উপস্থিতি টের পেয়েছে বিশ্ববাসী । পর্যায়ক্রমে সারা বিশ্বের প্রায় অনেকগুলো দেশেই করোনার কারণে স্থবির হয়ে পড়ে স্বাভাবিক চলমান প্রক্রিয়া। ফলে মানুষের আয়ের উৎস গুলো বন্ধ হয়ে যায় অনায়াসেই, সাধ্যমত মানবতাবাদী মানবদরদী সচেতন মহল এগিয়ে আসেন অসহায় মানুষের সাহায্যার্থে। প্রত্যেকটি দেশের সরকারও জনগণের অসুবিধার কথা চিন্তা করে সুবিধা প্রদান করেন।
কিন্তু ঈদ আনন্দ উদযাপনের জন্য আমাদের প্রত্যেকের কিছু বাড়তি ব্যয়ের প্রয়োজন হয়।নতুন জামা জুতো একটু ভালো মানের খাবার মূলত উৎসব উদযাপনের প্রধান উপকরণ। যা উদযাপনের জন্য  আমাদের দেশের মানুষরা একটি বছর আগ থেকেই প্রস্তুতি গ্রহণ করে থাকে।
কিন্তু করোনার কারণে এবার সবকিছুতেই দেখা দিয়েছে বিপত্তি। তাই ঈদ আনন্দ উদযাপনে এবার ভাটা পড়েছে।কারণ যেখানে দৈনন্দিন খাবার জোগাড় করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে সেখানে আনন্দ উদযাপনের কথা ভাবা টা কষ্টকর নয় কি।
এমন পরিস্থিতিতে আমাদের উচিত হবে অন্যান্য সময়ের মতো ঈদেও সাহায্য সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়া। মুসলিম প্রধান দেশ হিসেবে যাকাতের প্রচলন এবং প্রয়োগটা বাড়িয়ে গরিবের হক পরিপূর্ণভাবে আদায় করা। তবেই হয়তো দরিদ্র প্রদান আমাদের এই দেশে নিম্নমধ্যবিত্ত মানুষগুলো ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পারবে।

প্রথম থেকে সবার ধারণা এবং আশা ছিল কিছু সময় পরে হয়তো করোনা বিদায় নেবে। কিন্তু এখন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং মানুষের ধ্যান ধারণার পরিস্ফুটনে প্রত্যেকের জানা হয়েছে খুব শীঘ্রই এটি বিশ্ব থেকে উধাও হচ্ছে না।
আশার কথা এই যে আক্রান্তের পাশাপাশি সুস্থতার হার ও দিনকে দিন বাড়ছে। তার মানে অন্য সকল রোগের মত করেই করোনা কে সাথে নিয়ে, মোকাবেলা করে,সচেতন হয়েই আমাদেরকে সকলের চলমান জীবন গতিশীল করতে হবে।
তাই আমাদেরকে করোণা আগমনের পূর্ববর্তী সময়ের কথা ভুলে গিয়ে,সামনের জীবনে নতুন করে জীবন ধারণের ধারাকে পাল্টে করোনা মোকাবেলায় সতর্ক ও সচেতন হয়ে স্বহাবস্থানে যেতে হবে।

পরিশেষে প্রত্যেকের ঈদ আনন্দময় বেদনাহীন হয়ে ঘরে থেকে পরিবার পরিবারের সাথে একান্ত সান্নিধ্যে কাটানোর আশা ব্যক্ত করৈ এখানেই শেষ করছি।

লেখক: মোঃ আরিফুর রহমান
সম্পাদক ও প্রকাশক
সময়ের গর্জন

আরও পড়ুন

দেশে ফেরত আসলো ভারতে পাচার হওয়া ৩৭ বাংলাদেশী
বালিয়াডাঙ্গী ব্লাড ডোনার অর্গানাইজেশনের ৩য় বর্ষপূর্তি উদযাপন
জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগ দিতে শুক্রবার ঢাকা ছাড়ছেন প্রধানমন্ত্রী
সংক্রমণ বেড়ে গেলে পুনরায় স্কুল-কলেজ বন্ধ : স্বাস্থ্যমন্ত্রী
সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে শেখ হাসিনার নির্দেশ
জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বসিলায় র‍্যাবের অভিযান, আটক ১
ইতিহাসগড়া সিরিজ জয়
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টাইগারদের ইতিহাস গড়া প্রথম জয়